মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ে ১৭৫ চাকরি

মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ে ১৭৫ চাকরি

8
SHARE

ল্যাবরেটরি টেকনোলজিস্ট, হিসাবরক্ষক, ন্যাশনাল হেল্পলাইন সার্ভিস প্রোভাইডার, কম্পিউটার অপারেটর ও অফিস সহকারী পদে অস্থায়ী ভিত্তিতে জনবল নিয়োগ দেবে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়। নারী নির্যাতন প্রতিরোধকল্পে মাল্টিসেক্টরাল প্রোগ্রামে (চতুর্থ পর্ব) এ নিয়োগ দেওয়া হবে। বিজ্ঞাপনে উল্লিখিত পদগুলোতে আবেদন করা যাবে আগামী ১ জুন পর্যন্ত। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিটি ১৭ মের সমকালে (১৮ পৃষ্ঠা) প্রকাশিত হয়েছে।

আবেদনের যোগ্যতা

ল্যাবরেটরি টেকনোলজিস্ট পদে নেওয়া হবে ২২ জন। প্রার্থীকে ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজি অথবা অন্য কোনো সমমানের প্রতিষ্ঠান বা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ল্যাবরেটরি টেকনোলজিস্ট হিসেবে চূড়ান্ত ডিগ্রিপ্রাপ্ত হতে হবে। হিসাবরক্ষক পদে নেওয়া হবে ৩ জন। ন্যূনতম দ্বিতীয় শ্রেণিতে বাণিজ্যে স্নাতক হলে আবেদন করা যাবে। ন্যাশনাল হেল্পলাইন সার্ভিস প্রোভাইডার পদে ৪০ জন ও কম্পিউটার অপারেটর পদে নেওয়া হবে ১০৭ জন। এতেও ন্যূনতম দ্বিতীয় শ্রেণির স্নাতক হলেই আবেদন করা যাবে। কম্পিউটার চালনার দক্ষতা থাকতে হবে। কমপক্ষে তিন বছরের অভিজ্ঞতা এবং এমএস ওয়ার্ড, এক্সেলসহ কম্পিউটার চালনার দক্ষতা থাকলেই আবেদন করা যাবে কম্পিউটার অপারেটর পদে। অফিস সহকারী পদে নেওয়া হবে ৩ জন। উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। সব পদে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে অভিজ্ঞতা থাকলে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। ১ জুন ২০১৭ তারিখে আবেদনকারীর বয়স হতে হবে অনূর্ধ্ব ৩০ বছর। তবে মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৩২ বছর। একই প্রোগ্রামে কাজের অভিজ্ঞদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে এবং সে ক্ষেত্রে তাঁদের বয়সসীমাও শিথিলযোগ্য।

আবেদনের নিয়ম ও ঠিকানা

নারী নির্যাতন প্রতিরোধকল্পে মাল্টিসেক্টরাল প্রোগ্রামের (চতুর্থ পর্ব) প্রকল্প পরিচালক ড. আবুল হোসেন জানান, আগ্রহী প্রার্থীদের সাদা কাগজে আবেদন করতে হবে। এর জন্য জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নির্ধারিত ফরমের প্রয়োজন নেই। ১ জুন অফিস সময়ের মধ্যে প্রকল্প পরিচালক, নারী নির্যাতন প্রতিরোধকল্পে মাল্টিসেক্টরাল প্রোগ্রাম (চতুর্থ পর্ব), প্রকল্প বাস্তবায়ন ইউনিট, মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তর ভবন, ৩৭/৩ ইস্কাটন গার্ডেন রোড (চতুর্থ তলা), ঢাকা-১০০০—এই ঠিকানায় পাঠাতে হবে। আবেদনপত্র প্রেরণের সময় খামের ওপর পদের নাম উল্লেখ করতে হবে।

যা যা লাগবে

ড. আবুল হোসেন জানান, সাদা কাগজে প্রার্থীর নাম, পিতার বা স্বামীর নাম, মাতার নাম, স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা, জন্মতারিখ, বয়স, শিক্ষাগত যোগ্যতা, জাতীয়তা, অভিজ্ঞতা ইত্যাদি উল্লেখ করে আবেদনপত্র জমা দিতে হবে। তা ছাড়া সব শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার সনদপত্রের সত্যায়িত কপি, প্রথম শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তার দেওয়া চারিত্রিক সনদপত্র, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বা পৌরসভার মেয়র অথবা সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড কমিশনার বা কাউন্সিলরের দেওয়া নাগরিকত্ব সনদপত্র, প্রথম শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তা সত্যায়িত সম্প্রতি তোলা তিন কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি লাগবে। মুক্তিযোদ্ধা কোটা হলে প্রয়োজনীয় সনদের সত্যায়িত কপি যুক্ত করতে হবে। চাকরিরতদের কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।

কাজের ধরন

প্রকল্পের সিনিয়র প্রগ্রাম অফিসার সাবিনা সুলতানা জানান, প্রতিটি পদে যোগ্যতা ও পদ অনুযায়ী কাজের ধরন আলাদা। ল্যাবরেটরি টেকনোলজিস্ট পদে নিয়োগপ্রাপ্তদের কাজ ল্যাবকেন্দ্রিক। তাদের মূলত ডিএনএ ল্যাবে কাজ করতে হবে। যেমন ডিএনএর নমুনা সংগ্রহ, ব্লাড সংগ্রহ ইত্যাদি। হিসাবরক্ষক, অফিস সহকারী ও কম্পিউটার অপারেটরদের কাজ হলো অফিস সংশ্লিষ্ট কাজের পাশাপাশি নানা বিষয় হিসাব রাখা ও নথিভুক্ত করা। ন্যাশনাল হেল্পলাইন সার্ভিস প্রোভাইডারদের কাজ অনেকটা কল সেন্টারের মতো। মহিলা ও শিশুদের জন্য নির্ধারিত হেল্পলাইনে কল রিসিভারের কাজ করতে হবে। বিশেষ করে, ভিকটিম নারী ও শিশুদের অভিযোগগুলো শোনার পাশাপাশি তাদের বিভিন্ন সমস্যার সমাধানে কার্যকরী পরামর্শ দিতে হবে।

নিয়োগপদ্ধতি

প্রকল্প পরিচালক ড. আবুল হোসেন জানান, আবেদনপত্র জমা দেওয়ার তারিখ শেষ হওয়ার যাচাই-বাছাই করা হবে। কাগজপত্র ঠিক আছে কি না তা দেখা হবে। বাছাই করার পর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে মিটিং করে নিয়োগ পরীক্ষার তারিখ ঠিক করা হবে। প্রাথমিক বাছাইকৃত যোগ্য প্রার্থীদের লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার জন্য ডাকা হবে। বাছাইকৃতদের ঠিকানায় ডাকযোগে পরীক্ষার প্রবেশপত্র পাঠানো হবে। যাঁরা ই-মেইলে আইডি দেবেন তাঁদের ই-মেইলে প্রবেশপত্র পাঠানো হবে। নিয়োগ পরীক্ষা কবে ও কোথায় হবে তা পরবর্তী মিটিংয়ের পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

পরীক্ষার প্রস্তুতি

ড. আবুল হোসেন জানান, পরীক্ষার মানবণ্টন এখনো ঠিক হয়নি। তবে এ ধরনের পরীক্ষাগুলোতে সাধারণত ইংরেজি, বাংলা, সাধারণ জ্ঞান ও গণিতের ওপর ১০০ নম্বরের প্রশ্ন থাকে। এ ছাড়া পদসংশ্লিষ্ট প্রশ্ন আসতে দেখা যায়। এ অংশে গ্রামার থেকে প্রশ্ন হয়। অ্যাকটিভ-প্যাসিভ, আর্টিকেল, প্রিপোজিশন, ফিল ইন দ্য ব্লাঙ্ক, সিনোনিমস অ্যান্ড এন্টোনিমস, কারেক্ট স্পিলিং, সেন্টেন্স মেকিংয়ের মতো বিষয় থাকে।

বাংলা অংশে সাহিত্য ও ব্যাকরণ থেকে প্রশ্ন হয়। ব্যাকরণ অংশে শব্দ, বর্ণ, এক কথায় প্রকাশ, শুদ্ধ বানান, পদ, প্রবাদ-প্রবচন, সন্ধি, বাক্য গঠন, সমাস, উপসর্গ থেকে প্রশ্ন হয়। লেখকের ছদ্মনাম, বিখ্যাত বই, উক্তি, চরিত্র, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক রচনা, লেখকের জন্ম-মৃত্যু, ইত্যাদির ওপর প্রশ্ন হয়ে থাকে সাহিত্য অংশে। যেমন প্রশ্ন হতে পারে, প্রমথ চৌধুরীর ছদ্মনাম কী?

সাধারণ জ্ঞান অংশে প্রশ্ন হয় বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি থেকে। দেশ, রাজধানী, আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থা, সদর দপ্তর, ভৌগোলিক অবস্থান, বিভিন্ন সমীক্ষা, মুক্তিযুদ্ধ, নদ-নদী, কৃষি ইত্যাদি বিষয়ক প্রশ্ন হতে পারে। যেমন প্রশ্ন হতে পারে ইন্টারপোলের সদর দপ্তর কোথায়? বাংলাদেশে খেতাবপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা কতজন? প্রশ্ন আসে সাম্প্রতিক বিষয় থেকেও।

গণিতে সাধারণত শতকরা, অনুপাত, ঐকিক, ল.সা.গু., গ.সা.গু, লাভ-ক্ষতি, মৌলিক সংখ্যা, স্থানাঙ্ক, মান নির্ণয়, কোণ, চতুর্ভুজ, ত্রিভুজ সম্পর্কিত প্রশ্ন হয়।

এ ছাড়া পদসংশ্লিষ্ট প্রশ্নও থাকতে পারে। যেমন ল্যাবরেটরি টেকনোলজিস্ট পদের পরীক্ষায় বিজ্ঞান থেকে প্রশ্ন হতে পারে। আবার কম্পিউটার অপারেটর পদের পরীক্ষায় কম্পিউটারবিষয়ক প্রশ্নও আসতে পারে।

বেতন ও সুযোগ-সুবিধা

জাতীয় বেতন স্কেল অনুযায়ী ল্যাবরেটরি টেকনোলজিস্ট পদে বেতন পাবেন ২১৭০০ টাকা স্কেলে। হিসাবরক্ষক পদে অনুযায়ী সাকল্য বেতন পাবেন ১৯৭৮০ টাকা। ন্যাশনাল হেল্পলাইন সার্ভিস প্রোভাইডার ও কম্পিউটার অপারেটর পদে সাকল্য বেতন পাবেন ১৯৩০০ টাকা। অফিস সহকারী পদে সাকল্য বেতন পাবেন ১৭০৪৫ টাকা। তা ছাড়া নিয়ম অনুযায়ী সব সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। এই প্রজেক্টের কাজ শেষ হলে নতুন প্রজেক্টে অগ্রাধিকার দেওয়া হতে পারে। তবে এটা মূলত প্রজেক্টের ওপর নির্ভর করে।

যোগাযোগ

প্রকল্প বাস্তবায়ন ইউনিট, মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তর, ভবন ৩৭/৩, ইস্কাটন গার্ডেন রোড (চতুর্থ তলা), ঢাকা-১০০০।

ওময়ব : www.mspvaw.gov.bd

ফোন : ০২-৮৩২১০৪১, ০২-৯৩৫২৪৫০, ০২-৮৩২২২৬৭, ০২-৯৩৪২৪২৪

মোবাইল : ০১৭০৭-৮১০৪৩৪

NO COMMENTS